“সোডিয়াম জাদুঘর”

image

মেয়েটার মন ভালো নেই..।। ফোন দিয়ে বলছে,
– “আমাকে নিয়ে একটু ঘুরতে যাবা..??”

আমার খুশীতে লাফ দিয়ে ব্যাঙ হয়ে যাওয়ার কথা..।। কিন্তু, ব্যাঙ হতে পারছি না..।। মানিব্যাগ নাই আমার..।। পকেটে হাত দিয়ে দেখলাম আছে মাত্র ১৭০ টাকা..!! -_-

জানালা দিয়ে পাশের বাড়ির দিকে তাকিয়ে ভাবছি এই বাড়িতে গতকালই একটা বড়সড় চুরি হয়ে গেছে..।। চোর হলেও ভালো ছিলো..!!
At least, টাকা পয়সা নিয়ে চিন্তা করতে হতো না..।। :/

দাঁড়ি চুলকাচ্ছে..।। হাতের তালু চুলকালেও একটা কথা ছিলো..।। এক মামা বলেছিলো হাতের তালু চুলকালে নাকি হাতে টাকা-পয়সা আসে..।। আর এখন দাঁড়ি চুলকাচ্ছে..।।
এর মানে কি হতে পারে..?? O.o

আবার ফোন,
– “কই তুমি বের হইছো..??”
– “দেখি..।।”
– “দেখি মানে..?? কি দেখো..?? আমি তো বের হয়ে গেছি..।।”
– “ওইতো, আমিও বের হইছি..।। রিক্সা দেখতেছি..।।”

কি আর করার..!!
১৭০ টাকা নিয়েই বের হলাম..।। ওর মন ভালো করার জন্য কি করা যায়..??
মেয়েটার ক্যান্ডেল খুব পছন্দের..।। ক্যান্ডেল দিলে কেমন হয়..!! 😀

আড়ং’এ গিয়ে একটা মোম খুব ভালো লেগে গেলো..।। নীল গ্লাসের মধ্যে ওলিভ কালার মোম..।। নীল ওর খুব পছন্দের রং..।। আর আমার ওলিভ..।। ^_^

নীলের ভেতর ওলিভ..।। ওর ভেতরে আমার বাস..।। আবেগ এসে যাচ্ছে..।। তাহসান স্যারের গানটা মনে পড়ে যাচ্ছে,
“বিন্দু আমি…তোমায় ঘিরে…বৃত্তের ভেতর..” _<

– “শোনো তুমি আমাকে তোমার পছন্দের কোথাও নিয়ে যাও..।।”
– “পরীবাগ যাবা..??”
– “ওখানে কি আছে..??”
– “সোডিয়াম জাদুঘর..।।”
– “মানে..??”
– “চলোই না, গেলেই দেখবা..।।”

আমি ওকে আমার খুব পছন্দের পরীবাগ ওভার ব্রিজের ওপর নিয়ে গেলাম..।। সন্ধ্যার পর এখানকার পরিবেশটাই অন্যরকম..।। নীল ছাউনির এই ব্রীজের রেলিংয়ের ওপর হাত দিয়ে দাঁড়ালে দেখা যায় হলুদ সোডিয়াম বাতি আর গাড়ির লাইন..।।
একটার পর একটা গাড়ি..।। ভি.আই.পি রোড..।। কোনো রিক্সা নেই, জ্যাম নেই..।। 🙂

– “এইটা তোমার সোডিয়াম জাদুঘর..!!”

আমি ওকে বুঝিয়ে দিলাম..।। তাকিয়ে দেখো একসাড়িতে গাড়ি গুলো সামনে যাচ্ছে, আরেক সাড়িতে গাড়িগুলো আমাদের দিকে আসতেছে..।।
যে গাড়িগুলো আসতেছে সেগুলোর সামনের বাতি হলুদ, আর যেগুলো যাচ্ছে সেগুলোর পিছনের বাতি লাল..।। ^_^

আইল্যান্ডকে দুইভাগ করে দুইদিকে তাকালে একদিকে শুধু হলুদ বাতি আর একদিকে শুধুই লাল বাতি..।। মনে হবে শুধু শতাধিক বাতি ছুটে বেড়াচ্ছে..।।
আর উপরে হেডলাইটের সোডিয়াম তো আছেই..।। 😀

– “তুমি এত্তো রোমান্টিক..!! আমার মনটাই ভালো হয়ে গেছে..।।”

– “আচ্ছা, এই জায়গার নাম পরীবাগ কেনো..।। পরী কই..??”
– “আমার সাথেই..।।”

উত্তর শুনে ও চুপ..!!
অনেকক্ষন কেউ কোনো কথা বলছি না..।। ও আমার সোডিয়াম জাদুঘর দেখছে, আর আমি আমার পরীবাগের পরী দেখছি..।। হলুদ বাতির আভা ছড়িয়ে গেছে পরীটার চোখে মুখে..।। ❤

হঠাৎ শরীর কাঁপিয়ে বিদ্যুৎ খেলে গেলো..।। ও আমার হাত ধরেছে..।। কারেন্টের শক দিয়েছে কেউ আমাকে..।। :O

ও তাকিয়ে আছে অন্যদিকে..।। ওর দিকে তাকিয়ে আস্তে আস্তে বললাম,

“গভীর রাতের সোডিয়ামে,
হলুদ আমি হলুদ তুমি..।।
কালো আকাশের মাঝখানেতে,
হলুদ বাতির এইখানেতে..।।”

– “খুব সুন্দর একটা সন্ধ্যা..।। তাই না..??”
– “অনেক বেশী সুন্দর..!!”

হাতে চাপ বেড়ে গেছে..।। শরীর বেয়ে কারেন্ট বয়ে যাচ্ছে..।। ভোল্টেজ অনেক হাই..।। আমি মরে যাবো..!! 😥

#Skblsya √

Find Me On Facebook →
facebook/Skblsya22